মাসায়েরমাহে রমজানহাদিসের বানী

ঈমানের সঙ্গে সওয়াবের উদ্দেশ্যে সংকল্প সহকারে সিয়াম পালনের ফজিলত

সহীহ বুখারী (তাওহীদ) অধ্যায়ঃ ৩০/৬, হাদিস নং ১৯০১

মহান আল্লাহ সুবহানাহু অতায়ালা পবিত্র মাহে রমজানের রোজা আমাদের জন্য ফরজ করেছেন। যেমন তিনি বলেনঃ
يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا كُتِبَ عَلَيْكُمْ الصِّيَامُ كَمَا كُتِبَ عَلَى الَّذِينَ مِنْ قَبْلِكُمْ لَعَلَّكُمْ تَتَّقُونَ
অর্থঃ হে মু’মিনগণ! তোমাদের জন্য সিয়াম ফরজ করা হল, যেমন ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপর, যেন তোমরা মুত্তাকী হতে পার।’’ (আল-বাকারাহ্ঃ ১৮৩)

পবিত্র মাহে রমজানের রোজা রাখার ক্ষেত্রে ঈমানের সাথে সওয়াবের উদ্দেশ্য থাকতে হবে। তবেই মহান রাব্বুল আলামিন আমাদের জীবনে ঘটে যাওয়া পিছনের সমস্ত গুনাহ মাফ করে দিবেন।

হাদীসের বাণীঃ
حَدَّثَنَا مُسْلِمُ بْنُ إِبْرَاهِيمَ حَدَّثَنَا هِشَامٌ حَدَّثَنَا يَحْيَى عَنْ أَبِي سَلَمَةَ عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ عَنْ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ مَنْ قَامَ لَيْلَةَ الْقَدْرِ إِيمَانًا وَاحْتِسَابًا غُفِرَ لَهُ مَا تَقَدَّمَ مِنْ ذَنْبِهِ وَمَنْ صَامَ رَمَضَانَ إِيمَانًا وَاحْتِسَابًا غُفِرَ لَهُ مَا تَقَدَّمَ مِنْ ذَنْبِهِ
অর্থঃ আবূ হুরাইরাহ্ (রাঃ) হতে বর্ণিত। নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি লাইলাতুল ক্বদ্রে ঈমানের সাথে সাওয়াবের আশায় রাত জেগে ‘ইবাদত করে, তার পিছনের সমস্ত গোনাহ ক্ষমা করা হবে। আর যে ব্যক্তি ঈমানসহ সওয়াবের আশায় রমাযানে সিয়াম পালন করবে, তারও অতীতের সমস্ত গোনাহ মাফ করা হবে। (৩৫) (আধুনিক প্রকাশনীঃ ১৭৬৬, ইসলামিক ফাউন্ডেশনঃ ১৭৭৭)

সর্বোপরি কথা হলো এবাদাত যেন মহান আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টির জন্য হয়। লোক দেখানো বা নিজেকে পর্হেজগার হিসেবে সমাজে উপস্থাপন করার জন্য যেন না হয়। কারন লোক দেখানো ইবাদাত আল্লাহর দরবারে পৌছায় না।

মুফতিহ মুহাঃ মুহিব্বুল্লাহ আল মুঈন
কামিল ফিকহ্, ঝালোকাঠী এন এস কামিল মাদ্রাসা

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close